বন্ধু রে আর কত কাঁদাবে

বন্ধু রে-
আর কত কাঁদাবে আমারে
জন্মভরা কাঁদাইলে
এই ছিল তোর অন্তরে।।

অতি সুখে ছিলাম একা
কেন এসে দিলে দেখারে
মনপ্রাণ যৌবন আমি
দিয়াছিলাম তোমারে।।

ত্রেতাতে বানাইলে সীতা
দিলে আমায় কত ব্যথারে
জ্বালাইয়া আগুনের চিতা
পরীক্ষা দিলে মোরে।।

দ্বাপরে বানাইলে দুঃখী
তোমায় ছাড়া কেমনে থাকি রে
দূরে রেখে সব সখি
ভাসি দুঃখের সাগরে।।

আমারে করিয়া সারা
কেন তুই গেলে মথুরা রে
আমি তোর পিরিতের মরা
তোমায় ছাড়া যাব মরে।।

দুর্বিন শাহ কয় কলির বেলা
ঋণ শুধিতে হবে জ্বালা রে
রাধা নামে দিয়া মালা
কান্দবে তুই দ্বারে দ্বারে।।

(রাইবিচ্ছেদ)