নির্জন যমুনার কূলে

নির্জন যমুনার কূলে
বসিয়া কদম্বতলে
বাজায় বাঁশি বন্ধু শ্যামরায়।।

বাঁশিতে কি মধুভরা
আমারে করিল সারা
আমি নারী গৃহে থাকা দায়।
কালার বাঁশি হলো বাম
বলে শুধু রাধা নাম
কুলবধু কুলমান মজায়।
বাঁশির সুরে অঙ্গ জ্বলে
ঘরের জল বাইরে ফেলে
মনে লয় যাব যমুনায়।।

শোন গো ললিতা সখি
বন্ধু ছাড়া কেমনে থাকি
প্রাণপাখি উড়ে যেতে চায়।
আমি নারী কুলবালা
কালার বাঁশি দিল জ্বালা
অঙ্গ কালা বন্ধুরও চিন্তায়।
কেউ যদি দরদি থাকো
বন্ধু এনে প্রাণটি রাখো
মনপ্রাণ সঁপিব রাঙা পায়।।

ভুবনমোহন সুরে
ভাটিয়াল নদী উজান ধরে
জ্বলে অনল আমার অন্তরায়।
মনে লয় সন্নাসী হইয়া
দেখিব তাল্লাশিয়া
কোন বনে বাঁশরি বাজায়।
নইলে কলসি বেন্দে গলে
ঝাঁপ দিব যমুনার জলে
প্রাণ ত্যাজিব বলে দুর্বিন শায়।।

(ভাটিয়ালি)