দূর পৃথিবীর গন্ধে

দূর পৃথিবীর গন্ধে ভরে ওঠে আমার এ বাঙালির মন
আজ রাতে; একদিন মৃত্যু এসে যদি দূর নক্ষত্রের তলে
অচেনা ঘাসের বুকে আমারে ঘুমায়ে যেতে বলে,
তবুও সে ঘাস এই বাংলার অবিরল ঘাসের মতন
মউরীর মৃদু গন্ধে ভরে রবে-কিশােরীর স্তন
প্রথম জননী হয়ে যেমন ননীর ঢেউয়ে গলে
পৃথিবীর সব দেশে- সব চেয়ে ঢের দূর নক্ষত্রের তলে
সব পথে এইসব শান্তি আছে: ঘাস-চোখ-শাদা হাত-স্তন-

কোথাও আসিবে মৃত্যু- কোথাও সবুজ মৃদু ঘাস
আমারে রাখিবে ঢেকে- ভােরে, রাতে, দুপহরে পাখির হৃদয়
ঘাসের মতন সাধে ছেয়ে রবে-রাতের আকাশ
নক্ষত্রের নীল ফুলে ফুটে রবে-বাংলার নক্ষত্র কি নয়?
জানি নাকো; তবুও তাদের বুকে স্থির শান্তি শান্তি লেগে রয়;
আকাশের বুকে তারা যেন চোখ-শাদা হাত-যেন স্তন-ঘাস-।