বসিয়া নদীকূলে এলোচুলে

বসিয়া নদীকূলে এলোচুলে
কে উদাসিনী।
কে এলে পথ ভুলে
এ অকূলে বন-হরিণী॥

কলসে জল ভরিয়া চায়
করুণায়, কুলবধূরী,
কেঁদে যায় ফুলে ফুলে
পদমূলে সাঁঝ-তটিনী॥

নিশিদিন চাহি তোমারে
ওপারে বাজিছে বাঁশি,
এপারে বাজে বধূর
মল-নূপুর মধু-ভাষিণী॥

আকাশে মেলিয়া আঁখি
লেখা কি পড়িছ পিয়ার,
কে গো সে রূপ-কুমার
তুমি গো যার অনুরাগিণী॥

দলিয়া কত ভাঙা মন
ও চরণ, করেছ রাঙা,
কাঁদায়ে কত না দিল্
এলে নিখিল-মনমোহিনী॥

হারালি গোধূলি-লগন,
কবি, কোন্ নদী-কিনারে,
একি সেই স্বপন-চাঁদ
পেতেছে ফাঁদ প্রিয়ার সতিনী॥

[কালাংড়া—কাওয়ালি]