দোলে নিতি নব রূপের ঢেউ-পাথার

দোলে নিতি নব রূপের ঢেউ-পাথার
ঘনশ্যাম তোমারি নয়নে।।

আমি হেরি যে নিখিল বিশ্বরূপ-
সম্ভার তোমারি নয়নে।।

তুমি পলকে ধর নাথ সংহার-বেশ,
হও পলকে করুণা-নিধান পরমেশ,
নাথ ভরা যেন বিষ অমৃতের ভাণ্ডার
তোমার দুই নয়নে।।

ওগো মহা-শিশু, তব খেলা ঘরে
একি বিরাট সৃষ্টি বিহার করে,
সংসার চক্ষে তুমিই হে নাথ,
সংসার তোমারি নয়নে।।

তুমি নিমেষে রচি নব বিশ্বছবি
ফেল নিমেষে মুছিয়া হে মহা কবি,
করে কোটি কোটি ব্রহ্মাণ্ড ভুবন-সঞ্চার
তোমারি নয়নে।।

তুমি ব্যাপক বিশ্ব চরাচরে
জড় জীবজন্তু নারী নরে,
কর কমল-লোচন, তোমার রূপ বিস্তার হে
আমারি নয়নে।।

[ভজন, ভীম পলশ্রী- কার্ফা]


(বনগীতি গ্রন্থের প্রথম খণ্ড হতে সংগৃহীত)