এলে তুমি কে কে ওগো

পুরুষ: এলে তুমি কে, কে ওগো—
তরুণা অরুণা করুণা সল চোখে।

স্ত্রী: আমি তব মনের বনের পথে
ঝিরি ঝিরি গিরি-নির্ঝরিণী
আমি যৌবন-উন্মনা হরিণী মানসলোকে॥

পুরুষ: ভেসে যাওয়া মেঘের সজল ছায়া
ক্ষণিক মায়া তুমি প্রিয়া,
স্বপনে আসি’ বাজায়ে বাঁশী
স্বপনে যাও মিশাইয়া।

স্ত্রী: বাহুর বাঁধনে দিই না ধরা,
আমি স্বপন-স্বয়ম্বরা
সঙ্গীতে জাগাই ইঙ্গিতে ফোটাই
তোমার প্রেমের যুঁই-কোরকে।

উভয়ে: আধেক প্রকাশ আধেক গোপন
আধো জাগরণ আধেক স্বপন
খেলিব খেলা ছায়া-আলোকে॥