কেঁদে যায় দখিন-হাওয়া

কেঁদে যায় দখিন-হাওয়া ফিরে ফুল-বনের গলি,
‘ফিরে যাও চপল পথিক’, দুলে কয় কুসুম-কলি!
দুলে দুলে কয় কুসুম-কলি।।

ফেলিছে সমীর দীরঘশ্বাস- আসিবে না আর এ মধুমাস,
কহে ফুল, ‘জনম জনম এমনি গিয়াছ ছলি’।
জনম জনম গিয়াছ ছলি।।

কহে বায়, ‘রজনী-ভোরে বাঁশি ফুল পড়িবে ঝরে’;
কহে ফুল, ‘এমনি করে আমি ফুল-চোরেরে দলি,
এমনি কুসুম-চোরেরে দলি।।

কাঁদে বায়, ‘নিদাঘ আসে আমি যাই সুদূর বাসে’,
ফুটে ফুল হাসিয়া ভাসে, ‘প্রিয়তম যেয়োনা চলি’।।

[সিন্ধু-কাফি- ঠুংরি]


(বনগীতি গ্রন্থের প্রথম খণ্ড হতে সংগৃহীত)