কেমনে কহি প্রিয় কি ব্যথা প্রাণে বাজে

নিশীথ হয়ে আসে ভোর
বিদায় দেহ প্রিয় মোর।
রজনিগন্ধার বনে হের
গুঞ্জরিছে ভ্রমর।।
হের ঐ তন্দ্রা-ঢুলু ঢুল
জড়ায়ে হাতে এলো চুল,
বধূ যায় সিনান-ঘাটে
পথে লুটায় বসন আকুল।।
খোল খোল বাহুর মালা,
মোছ মোছ প্রিয়া আঁখি।
শোন কুঞ্জ-দ্বারে তব কুহু
মুহুমুহু ওঠে ডাকি।।
হের লো, শিয়রে তব
প্রদীপ হয়ে এল ম্লান,
দাঁড়াল রাঙা উষা ঐ
রঙের সাগরে করি ম্লান
আকাশ-অলিন্দে কাঁদে
পাণ্ডুর-কপোল শশী,
শুকতারা নিবু-নিবু ঐ
মলয়া ওঠে উছসি।
কাঁদে রাতের আঁধার
মোর বুকে মুখ রাখি।।

[গজল, ভৈরবী মিশ্র-কার্ফা]


(বনগীতি গ্রন্থের প্রথম খণ্ড হতে সংগৃহীত)