তুমি ফুল আমি সুতো গাঁথিব মালা

পুরুষ: তুমি ফুল আমি সুতো গাঁথিব মালা।।
স্ত্রী: তাহে মোরেই সহিতে হবে সূচীর জ্বালা।।
পুরুষ: দুলিবে গলে মোর বুকের পরে,
স্ত্রী: ফেলে দিবে বাসি হলে নিশি-ভোরে,
আমি বন-কুসুম ঝরি বনে নিরালা।।

পুরুষ: তব কুঞ্জ-গলি
আসে দখিন-হাওয়া,
আসে চপল অলি।
স্ত্রী: তারা রূপ-পিয়াসী
তারা ছিঁড়ে না কলি।
তারা বনের বাহিরে মোরে নেবেনা কলি।
পুরুষ: তবে চলিয়া যাই আমি নিরাশা লয়ে,
স্ত্রী: না, না, থাক বুকে শিশির হয়ে,
তব প্রেমে করিব আমি বন উজালা।।

[ডুয়েট গান]


(বনগীতি গ্রন্থের প্রথম খণ্ড হতে সংগৃহীত)