আমন্ত্রণঃ বন্ধুদের প্রতি

(জাহাঙ্গীর, বাচ্চু, নীরু ও টুটুকে)

মাঝরাতে সন্তর্পণে হামাগুড়ি দিয়ে, স্পন্দমান
প্রাক পুরাণিক ঋণ শােধের উৎসবে,
এসাে পরস্পরের রক্তিম লােনা মাংসে
হৃৎপিণ্ডের দামামায় আজ মুছে দিয়ে প্রস্তাবনা
সভ্যতার, গােধূলির রঙে দন্তরাজিরে রাঙাই

তবেই তােমার সাথে চেনাশােনা রক্তলাল চোখে
পৌছােবে প্রার্থিত পূর্ণতায়।
তুমি এসাে,
আমি নির্ধারিত অঞ্চলেই বন্ধু, তােমার তন্ময় প্রতীক্ষায়
দাঁড়িয়ে থাকবাে ঠাঁয়, বর্ণোজ্জল চোখে মােরগের
উষ্ণ অহঙ্কারে,
কিংবা উচু ডালের অদৃশ্যে, গুচ্ছ গুচ্ছ আঙুরলতার স্বপ্নে
নির্বোধ কবির মনে নেশাগ্রস্ত আত্মনেপদীর
রীতিতে বিভাের,
কেন না যদিও ধূর্ত আমি শেয়ালের মতাে
গৃহস্থের করুণায় কোনমতে বাঁচি
আর অচিকিৎস্য উজবুকের মতাে
হতাশার প্রসারিত উঠোন পেরিয়ে
অতল সংকীর্ণ কোন নীল স্বপকূপে ডুবে মরি,

অতএব অনায়াসে ধরাশায়ী হতে পারি আমি।