কবি-কিশোর

তুই শুধু বেঁচে গেলি বিভীষণ অন্যদের ছুঁলাে
নীলিমার উষ্ণ জরায়নে তিলে-তিলে জমে-ওঠা
লালাভ স্পন্দন
দ্যাখে নি কোথাও কেউ, কোন লােক, কোন বােকা চোখ
বিশ শতকের শূন্য নিঃস্বপ্ন আকাশে জ্যোৎস্না-লাগা
মেঘের ঝুলনা,-
অলীক, অদ্ভূত, হাস্যকর : এইমতাে ঠাওরালাে
সকলেই, সকলেই-
তুই শুধু বেঁচে গেলি বিভীষণ অন্যদের ছুঁলাে।

চারদিক কালাে-মাথা তবু গােধূলিতে কী সুন্দর
ওই সিন্ধুজল
কেঁপে ওঠে, তরঙ্গ ছড়ায় পরীদের গন্ধবাহী
মন্থর হাওয়ায়
ক্ষীণায়ু মােমের মতাে ম্লান সূর্য-প্রয়াণের পর
ককায় অপেক্ষমাণ পড়ে-থাকা স্তব্ধ পটভূমি
স্বপ্নের উজ্জ্বল দাগে আকাঙ্খার কঠিন আঁচড়ে
ভরে গেলাে,
তুই শুধু বেঁচে গেলি, বিভীষণ অন্যদের ছুঁলাে।।