দুরাশা ৩

এমনই দুর্ভাগ্য তার
ঘরে কোনওদিন একফোঁটা স্বচ্ছলতা ছিল না।
অথচ অপুষ্টি ছিল, অসুখের বাড়াবাড়ি ছিল
অসহ্য রকম অনাহার ছিল।

ক্রমশ রাক্ষুসি দিন সুতীক্ষ্ণ নখরাঘাতে
ছিড়েটিড়ে বিকল করে গেল মস্তিষ্কের যাবতীয় কলকবজা
তিনি পথভ্রষ্ট হলেন।

এই কাদামাটির পৃথিবীতে আকাঙক্ষার ঘরদোর
দু’বেলা আহার কোনওদিন হবে না জানেন
যতদিন বেঁচে আছেন রক্তমাংসের মানুষ।

তাই তিনি অলৌকিক স্বপ্ন বেছে নিলেন
‘বেহেস্তে এমন খানা, একবার খানা খাইব যে
চল্লিশ হাজার বচ্ছর খাইতেই থাকব।
ঢেক একটা আইবাে তাে মেসকাম্বর।’

সেজদায় কপাল ভেঙে তসবিহতে জপতে জপতে আল্লাহ
তিনি এখন বেহেস্তে যেতে চান
চুলে জটে হাড্ডিসার আস্ত একটা মামদোভূত
তার আর কোনও মােহ নেই—

তিনি এখন স্বেচ্ছায় মরে যেতে পারেন
মরে গেলে ঝলমলে বেহেস্ত, ওখানে খানাপিনা
‘আহা! ঢেক একটা আইবাে তাে মেসকাম্বর।’

(গ্রন্থঃ শিকড়ে বিপুল ক্ষুধা)