একদিন দেখিস

একদিন তাের জানুতে থুতনি রেখে আমি দেখিস
তােকে এক ঘটি সমুদ্রের নােনা ভালবাসা দেব।
বলব বুকে মুখে ছিটিয়ে শুদ্ধ হয়ে নে।

তাের চিবুক ছুঁলেই আমার রক্তের ভেতর টকাশ টকাশ
দৌড়ে যায় তিনশাে লাগামহীন ঘােড়া,
তাের বুকে ঠোট ছোঁয়ালেই
অসহ্য আনন্দে মাঝপথে মুখ থুবড়ে পড়ে থাকি,
একদিন তাের শাড়ি-কাপড় লােপাট করে দেখিস
তোর পুরাে শরীরের সুগন্ধ নেব।

কোমর পেঁচিয়ে ধরে মােহন ছােবল দেব
তাের নীলচে চেহারা নিয়ে সারারাত মাতম করব দেখিস
উৎসব করে করে পৃথিবীতে সূর্য ছিটিয়ে ভাের আনব।

তুই এবং আমি
আমরাই তাে কেড়ে খেতে পারি তাবৎ সুখ
একদিন দেখিস আমাদের অসুখ-বিসুখ সব
দলামােচা করে ছুড়ে দেব নােংরা নর্দমায়।

(গ্রন্থঃ শিকড়ে বিপুল ক্ষুধা)