সময়ের খেলনা

শৈশবের গােল্লাছুট থেকে ছুটতে ছুটতে ভুল গন্তব্যে এসে দেখি
বেলা বেড়ে গেছে, লুকোচুরি খেলার সাথী কেউ নেই
ডুবতে ডুবতে সূর্য অতল সমুদ্র শরীরে
ছড়ায় গভীর বিষাদ।
আহা কেউ নেই! চারদিকে বেলেল্লা আঁধার
চুপসে রেখেছে তাই ঘাসের বিছানা।
বেলা বেড়ে গেছে, খুলে গেছে হাট করে বুকের কপাট
জীবনের রংরস চুষে চুষে দৈর্ঘ্যে প্রস্থে
বেঢপ রকম বড় হয়ে গেছি
ভুল গন্তব্যে এসে দেখি কোথাও কেউ নেই।
স্মৃতির ভেতরে শুধু কিছু হৃদয়ের মানুষ।

দুঃখ চুয়ে চুয়ে পড়ে জীবনের কার্নিশ বেয়ে
দিনভর নৈঃশব্দের সাথে লুকোচুরি খেলি
কিছু কিছু হৃদয়ের মানুষ স্মৃতি হয়ে কেবলি কঁদায়।

(গ্রন্থঃ শিকড়ে বিপুল ক্ষুধা)