এক জোড়া কালাে আঁখি

এক জোড়া কালাে আঁখি—এত মূল্য তারি!
নিতান্ত পাগল ছাড়া কে করে প্রত্যয়?
জগতের যত রত্ন লাজে মানে হারি—
বিনিময়ে দিতে পারি, যা-কিছু সঞ্চয়!
—ঐ যুগ্ম কৃষ্ণতারা—নীরব ভাষায়,
শধু ইঙ্গিতের মাঝে এত কথা কহে।
আভাসে ভঙ্গিতে সে যে কাঁদায় হাসায়—
মুখর মুখের ভাষা মৌন হয়ে রহে।
বর্বর মানবদেহ— স্থুলতা সম্বল;
অরূপ বিচিত্রসূত্রে সূক্ষ্ম শুধু মন!
দোঁহাকার মাঝখানে সৌন্দর্য তরল—
অন্তরে-বাহিরে মুক্ত যুগ্ম বাতায়ন!
হাসিলে, হাসায় পৃথ্বী-প্রভাত তপন;
কাঁদিলে, ঝর্ঝরে ঝরে মেঘাব্ধ শ্রাবণ।