বিরহ

আজ সারাদিন

  • সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
  • কবিতা, বিরহ

আজ সারাদিন একটাও কথা বলিনি কারুর সঙ্গে ব্রিজের ওপর দাঁড়িয়ে শুনছি কোলাহলময় সঙ্গীত পায়ে ক্ষীণ ব্যথা, জুতো খোলা যাক, খালি পায়ে দিক হাওয়া বুড়ো আঙুলের নখদর্পণে ঝলসে উঠলো প্রাক রজনীর চাঁদ হাঁটু গেড়ে বসি, এত ধুলোময় জগতে আমার চাঁদের গায়েও...বিস্তারিত

তিনি এবং আমি

  • সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
  • কবিতা, বিরহ

কেন রবীন্দ্রনাথকে তুমি বুকে জড়িয়ে বসে আছো জানলার ধারে আমি কি কেউ না? আমি গরিব ইস্কুল মাস্টারের ছেলে দাঁড়িয়ে আছি রাস্তায় হাঁ করে জলকাচা ধুতির ওপর পেঁজা শার্ট পরে, পায়ে রবারের স্যান্ডেল আমার কোনো জ্যোতিদাদা ছিল না, পিয়ানো-অর্গান শুনিনি সাত...বিস্তারিত

স্পর্শ

  • নির্মলেন্দু গুণ
  • কবিতা, বিরহ

জন্ম আমাকে স্পর্শ করে নি সূর্য আমাকে স্পর্শ করে নি অগ্নি আমাকে স্পর্শ করে নি ঘৃণা আমাকে স্পর্শ করে নি মৃত্যু আমাকে স্পর্শ করে নি নারী আমাকে স্পর্শ করে নি প্রেম আমাকে স্পর্শ করে নি। দুঃখ আমাকে স্পর্শ করেছে, স্পর্শ...বিস্তারিত

দাও সামান্য

  • সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
  • কবিতা, বিরহ

আর কিছু নয়, দু' আঙুলের ডগায় নুন তোলার মতন দাও ভালোবাসা! কবে লিখেছিলাম এমন, পঁচিশ বছর আগে? কাকে, কার উদ্দেশে, মনে নেই। আমার শরীরময় মারকিউরোক্রোম ছাপের মতন ক্ষত কিংবা স্মৃতি আমি দুঃখ-টুঃখ পুড়িয়ে সিগারেট ধরিয়েছি আলিঙ্গনের উষ্ণতা পেয়েছি বলেই টকাটক...বিস্তারিত

কমল-কাঁটা

  • কাজী নজরুল ইসলাম
  • কবিতা, বিরহ

আজকে দেখি হিংসা-মদের মত্ত-বারণ-রণে জাগছে শুধু মৃণাল-কাঁটা আমার কমল-বনে।। উঠল কখন ভীম কোলাহল, আমার বুকের রক্ত-কমল কে ছিঁড়িল-বাঁধ-ভরা জল শুধায় ক্ষণে ক্ষণে। ঢেউএর দোলায় মরাল-তরী নাচবে না আনমনে।। কাঁটাও আমার যায় না কেন, কমল গেল যদি। সিনান-বধূর শাপ শুধু আজ...বিস্তারিত

বেদনা-অভিমান

  • কাজী নজরুল ইসলাম
  • কবিতা, বিরহ

ওরে আমার বুকের বেদনা! ঝঞ্ঝা-কাতর নিশীথ রাতের কপোত সম রে আকুল এমন কাঁদন কেঁদো না।। কখন সে কার ভুবন-ভরা ভালোবাসা হেলায় হারালি, তাইতো রে আজ এড়িয়ে চলে সকল স্নেহে পথে দাঁড়ালি। ভিজে ওঠে চোখের পাতা তোর, একটি কথায়- অভিমানী মোর!...বিস্তারিত

নিশীথ-প্রীতম্

  • কাজী নজরুল ইসলাম
  • কবিতা, বিরহ

হে মোর প্রিয়, হে মোর নিশীথ-রাতের গোপন সাথী! মোদের দুইজনারেই জনম ভরে কাঁদতে হবে গো- শুধু এমনি করে সুদূর থেকে, একলা জেগে রাতি।। যখন ভুবন-ছাওয়া আঁচল পেতে নিশীথ যাবে ঘুম, আকাশ বাতাস থম্‌থমাবে সব হবে নিঝ্‌ঝুম, তখন দেব দুঁহু দোঁহার...বিস্তারিত

পরশ-পূজা

  • কাজী নজরুল ইসলাম
  • কবিতা, বিরহ

আমি এদেশ হতে বিদায় যেদিন নেব প্রিয়তম, আর কাঁদবে এ-বুক সঙ্গীহারা কপোতিনী সম, তখন মুকুর-পাশে একলা গেহে আমারি এই সকল দেহে চুমব আমি চুমব নিজেই অসীম স্নেহে গো, আহা পরশ তোমার জাগছে যে গো এই সে দেহে মম।। তখন তুমি...বিস্তারিত

হারা-মণি

  • কাজী নজরুল ইসলাম
  • কবিতা, বিবিধ, বিরহ

এমন করে অঙ্গনে মোর ডাক দিলি কে স্নেহের কাঙালি! কে রে ও তুই কে রে? আহা ব্যথার সুরে রে, এমন চেনা স্বরে রে, আমার ভাঙা ঘরের শূন্যতারি বুকের 'পরে রে। এ কোন পাগল স্নেহ-সুরধুনীর আগল ভাঙালি? কোন জননির দুলাল রে...বিস্তারিত

বিদায়-বেলায়

  • কাজী নজরুল ইসলাম
  • কবিতা, বিরহ

তুমি অমন করে গো বারেবারে জল-ছলছল চোখে চেয়ো না, জল-ছলছল চোখে চেয়ো না। ঐ কাতর-কণ্ঠে থেকে থেকে শুধু বিদায়ের গান গেয়ো না, শুধু বিদায়ের গান গেয়ো না।। হাসি দিয়ে যদি লুকালে তোমার সারা জীবনের বেদনা, আজো তবে শুধু হেসে যাও,...বিস্তারিত