না মিটিতে মনোসাধ যেয়ো না হে শ্যামচাঁদ

না মিটিতে মনোসাধ যেয়ো না হে শ্যামচাঁদ
আঁধার করিয়া ব্রজধাম, সখা হে —।
সোনার বরনী রাই অঙ্গে মাখিয়া ছাই
দিশা নাই কাঁদে অবিরাম, সখা হে —।।

অবিরাম কাঁদে রাই
তারে কাঁদায় যে তারি তরে
অবিরাম কাঁদে সখা হে।
এখনো মাধবী-লতা
কহেনি কুসুম-কথা
জড়াইয়া তরুর গলে,
এখনো ফোটেনি ভাষা
আধ-ফুট ভালোবাসা
ঢাকা লাজ পল্লব-তলে।
বলা হলো না,হলো না,
বুকের ভাষা মুখে বলা যে হলো না।
সখা আমরা নারী, বলতে নারি!
দুঃখের কথা মুখে বলতে নারি
নয়ন জলে গলতে পারি
তবু মুখে বলতে নারি
মরণ-কোলে ঢলতে পারি
সখা মুখ ফুটে তবু বলতে নারি, সখা হে —
নবীন নীরদ-বরণ শ‍্যাম জানিতাম মোরা তখনি,
ঐ করুণ সজল কাজল মেঘে থাকে গো ভীষণ অশনি।
তুমি আগুন জ্বালিলে,
ওহে নিরদয়! বুকে কেন আগুন জ্বালিলে।
বুকে আগুন জ্বালায়ে চোখে সলিল ঢালিলে।
তাহে আগুন নেভে কি?
চোখেরি জলে ডুবে আগুন নেভে কি
সথা হে- আগুন নেভে কি।।