তৃষ্ণার্ত আমাকে

(গােলাপের গন্ধে শরীরে শরীর ডুবিয়ে মাছ মাছ খেলব দু’জন)

বড় বেশি সাধ জাগে একবার ছুঁয়ে দেখি অমূল্য রতন,
আকাশ গড়িয়ে যদি ঝুপঝুপ বর্ষা নামে, অঙ্গ দেব খুলে
কবােষ্ণ চুম্বনে আমি শীতল শরীর তার করব যতন
প্রাসাদ পালিয়ে এসে নতজানু হতে চাই রাজ্যপাট ভুলে।

দু’বাহু বাড়িয়ে নাও অপরূপ তুলে নাও কোমল নিদাঘ
মৃদঙ্গ বাজিয়ে আহা তৃষ্ণার্ত আমাকে দাও প্লাবনের ঘর!
বড় বেশি সাধ জাগে কুমারী শরীরে মাখি রক্তবর্ণ দাগ
জগৎ সংসার ফেলে একবার ছুঁয়ে দেখি অসহ্য সুন্দর।

(গ্রন্থঃ শিকড়ে বিপুল ক্ষুধা)